ঢাকা , শনিবার, এপ্রিল ১৩, ২০২৪

বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী, বললেন ক্ষমতা আমার কাছে ভোগের বস্তু না

জানুয়ারী ২১, ২০২৪
অর্থনীতি
বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী, বললেন ক্ষমতা আমার কাছে ভোগের বস্তু না

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার (ডিআইটিফ) ২০২৪ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) ২৮তম উদ্বোধনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে টানা চারবার ক্ষমতায় আসতে পারায় জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমার কাছে ক্ষমতা কোনো ভোগের বস্তু না।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৭ জানুয়ারি জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আপনাদের সামনে উপস্থিত হতে পেরেছি। বাংলাদেশের জনগণের প্রতি আমি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই। যে তারা স্বতস্ফূর্ত ভোটের মাধ্যমে আমাদের আবার তাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছে। মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে দোয়া চাই যেন খুব সফলভাবে বাংলাদেশের এই অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে পারি। এজন্য সবার সহযোগিতা আমাদের কাম্য। নির্বাচনের সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট ছিলেন সাবাইক আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের মানুষের কাছে কৃতজ্ঞ এজন্য যে টানা চারবার ক্ষমতায় আসতে পেরেছি। আমার কাছে ক্ষমতা কোনো ভোগের বস্তু না। আমার কাছে ক্ষমতা হলো দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের একটা সুযোগ। মানুষের কল্যাণে কাজ করার একটা সুযোগ, মানুষকে সেবা দেওয়ার একটা সুযোগ আমি আবার পেয়েছি। এই সময়ে আমাদের সরকারে আসাটা খুব প্রয়োজন ছিল এই জন্য যে এই ২০২৬ সালে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে যেসব সুযোগগুলো আমরা পাবো ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারে সেই সুযোগগুলো আমাদের যথাযথভাবে ও সপরিকল্পিতভাবে গ্রহণ করতে হবে। আমাদের যে চ্যালেঞ্জগুলো আসবে সেগুলোও মোকাবিলা করতে হবে। যদিও আমরা সরকারে থাকতেই এই গ্র্যাজুয়েশনটা হয়েছে। তখনই আমি মুখ্য সচিব দিয়ে কমিটি করে দিয়েছি, কী কী সুযোগ আসতে পারে আর কী কী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে তার বিষদ কার্যক্রম আমরা শুরু করেছি। আমাদের আগাম প্রস্তুতি থাকলে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা খুব একটা কঠিন হবে না।
বিগত সময় ক্ষমতায় থাকাকালে যথেষ্ট সাফল্য অর্জিত হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ব্যাপকভাবে আমরা করে দিয়েছি। বাংলাদেশের যেকোনো অঞ্চল থেকে মানুষ আসতে পারে এবং পণ্য পরিবহন করতে পারে। সেই সুযোগটাও আমরা তৈরি করে দিয়েছি। বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে শুরু করে আমাদের যে প্রাকৃতিক গ্যাস আছে সেগুলো উত্তোলনের ব্যবস্থা করা। আমরা বিশাল সমুদ্রসীমা অর্জন করেছি। চ্যালেঞ্জ ছিল পদ্মাসেতু নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণ করে এটা প্রমাণ করেছি বাংলাদেশের জনগণকে কেউ চ্যালেঞ্জ দিয়ে যেটা জাতির পিতা বলেছেন দাবায়ে রাখতে পারবা না, তো দাবায়ে রাখতে পারেনি। ব্যবসা-বাণিজ্যের গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্যের যদি প্রসার না ঘটে কোনো দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারে না। উৎপাদন বৃদ্ধিতে আমরা বহুমুখী ব্যবস্থা নিয়েছি, সেগুলো নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা চাই আমাদের দেশটা আরও এগিয়ে যাক।
বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটুর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান।
এনডিটিভিবিডি/২১জানুয়ারি/এএ